National Flag Of India / জাতীয় পতাকা - (গেরুয়া, সাদা ও সবুজ) Designed By Pingali Venkayya - ১৯৪৭ সালের ২২ জুলাই

 National Flag Of India / জাতীয় পতাকা

-------------------------


ভারতী জাতীয় পতাকা এর নকশাটি তৈরি করেন Pingali Venkayya । জাতীয় পতাকা এর মধ্যে আপনারা যে বৃত্তটি দেখেন সেটির মধ্যে ২৪ টি স্পোক থাকে  এবং তিনটি রং য় গেরুয়া, সাদা ও সবুজ । ১৯৪৭ সালের ২২ জুলাই  গণপরিষদের একটি অধিবেশনে Pingali Venkayya দ্বারা তৈরি ভারতী পতাকাটি ভারতের জাতীয় পতাকা হিসেবে গৃহীত হয় । ভারতে এই Pingali Venkayya দ্বারা তৈরি পতাকাটিকে সাধারণত "ত্রিরঙ্গা পতাকা" বা "ত্রিবর্ণরঞ্জিত পতাকা" বলা হয় (গেরুয়া, সাদা ও সবুজ)। 


আইনগত ভাবে, কেবলমাত্র - খাদিবস্ত্রেই জাতীয় পতাকা প্রস্তুত করার নিয়ম রয়েছে , অন্য কোনো ব্যক্তিগত বা বেসরকারী সংস্থা্রা  জাতীয় পতাকা তৈরি করার নিয়ম নেই । ভারতীয় মানক ব্যুরো এই পতাকা  ( ভারতী জাতীয় পতাকা / গেরুয়া, সাদা ও সবুজ ) উৎপাদনের পদ্ধতি ও নির্দিষ্ট নিয়মকানুন স্থির করে দেয় এবং উৎপাদনের অধিকার খাদি উন্নয়ন ও গ্রামীণ শিল্প কমিশনের হাতে রয়েছে। খাদি উন্নয়ন ও গ্রামীণ শিল্প কমিশন বতমানে  বিভিন্ন আঞ্চলিক গোষ্ঠীকে উৎপাদনের দ্বায়িত্ব দিয়ে থাকে । 


ভারতীয় আইন গত ভাবে স্বাধীনতা দিবস, সাধারণতন্ত্র দিবস সহ অন্যান্য জাতীয় দিবস বাদে সাধারণ নাগরিকেরা পতাকা তোলার কোনো আধিকার নেই । কিন্ত ু  ২০০৫ সালে পতাকা বিধি সংশোধনের কয়েকটি বিশেষ ধরনের বস্ত্র ব্যবহারের আনুমতি দেওয়া হয় ।


----------------------------------------------


    ইতিহাস ঃ 

    বিভিন্ন দেশীয় রাজ্যের শাসকেরা ভিন্ন ভিন্ন নকশার একাধিক পতাকা ব্যবহার করতেন , ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলন শুরু হওয়ার আগে । ভারত  ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অধীনে এলে ব্রিটিশ শাসকবর্গ একক ভারতীয় পতাকার ধারণাটি প্রথম স্থাপন করেন , ১৮৫৭ সালের মহাবিদ্রোহের পর থেকে । ভারতী জাতীয় পতাকাটি  ২২ সে জুলাই ১৯৪৭ সালে গ্রহণ করা হয় । বিংশ শতাব্দীর পর থেকে ভারত , ব্রিটিশ  ও ঔপনিবেশিক শাসনের হাত থেকে বাচার জন্য ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের সূচনা পাই এবং জাতীয় পতাকার প্রয়োজনীয়তা বিশেষভাবে গুরত্ব পাই । স্বামী বিবেকানন্দের শিষ্যা ভগিনী নিবেদিতা ১৯০৪ সালে ভারতের প্রথম জাতীয় পতাকার নকশা তৈরি করেন এবং পতাকাটি ভগিনী নিবেদিতার পতাকা নামে পরিচিতি পাই । সেই সময় ভারতীয় পতাকায় "বন্দে মাতরম" কথাটি বাংলায় লিখিত ছিল । সেই সময় ভগিনী নিবেদিতা দ্বারা গঠিত ভারতীয় পতাকায়  তিনটি রং ছিল য়থা - লাল রং ছিল স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রতীক, হলুদ বিজয়ের ও শ্বেতপদ্ম পবিত্রতার প্রতীক । 


    নকশা ঃ

    HTML Code আনুসারে জাতীয় পতাকার তিনটি রং " গেরুয়া, সাদা ও সবুজ " ঃ 

    রং-------------------------------------------------------------------Code

    গেরুয়া--------------------------------------------------------------#FF9933
    সাদা-----------------------------------------------------------------#FFFFFF
    সবুজ----------------------------------------------------------------#138808
    নীল-----------------------------------------------------------------#000080


    প্রতীক ঃ

    সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণন , ভারতের প্রথম উপরাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন, তিনি  পতাকার প্রতীকতত্ত্বটি ব্যাখ্যা করেন সেটি হল ঃ 

     " ভাগোয়া বা গেরুয়া রঙ ত্যাগ ও বৈরাগ্যের প্রতীক। আমাদের নেতৃবৃন্দকে পার্থিব লাভের প্রতি উদাসীন ও আপন আপন কাজে যত্নবান হইতে হইবে। মধ্যস্থলে সাদা আমাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ ও স্বভাবের পথপ্রদর্শক সত্যপথ আলোর প্রতীক। সবুজ মৃত্তিকা তথা সকল প্রাণের প্রাণ উদ্ভিজ্জ জগতের সহিত আমাদের সম্বন্ধটি ব্যক্ত করিতেছে। সাদা অংশের কেন্দ্রস্থলে অশোকচক্র ধর্ম অনুশাসনের প্রতীক। সত্য ও ধর্ম এই পতাকাতলে কর্মরত সকলের নিয়ন্ত্রণনীতি হইবে। এতদ্ভিন্ন, চক্রটি গতিরও প্রতীক। স্থবিরতায় আসে মৃত্যু। জীবন গতিরই মধ্যে। পরিবর্তনকে বাধাদান ভারতের আর উচিত হইবে না, তাহাকে সম্মুখে অগ্রসর হইতে হইবেই। এই চক্রটি শান্তিপূর্ণ পরিবর্তনের গতিশীলতার প্রতীক

    ------------------------------


    সংগৃহীত :

    সম্পূর্ণ তথ্য গুলি আমি কিছু গ্রন্থ পরে আপাদের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি । তথ্য গুলি অনেক জ্ঞানদায়ক । তথ্য গুলি অতি সাধারন বাংলা ভাষাই লেখা । আশা করছি আপাদের এই তথ্য গুলি ভালো লাগেছে ।

    Download Bahubali 2 Movie

    একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

    0 মন্তব্য